মেনু নির্বাচন করুন

মিরপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়

  • সংক্ষিপ্ত বর্ণনা
  • প্রতিষ্ঠাকাল
  • ইতিহাস
  • প্রধান শিক্ষক/ অধ্যক্ষ
  • অন্যান্য শিক্ষকদের তালিকা
  • ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা (শ্রেণীভিত্তিক)
  • পাশের হার
  • বর্তমান পরিচালনা কমিটির তথ্য
  • বিগত ৫ বছরের সমাপনী/পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল
  • শিক্ষাবৃত্ত তথ্যসমুহ
  • অর্জন
  • ভবিষৎ পরিকল্পনা
  • ফটোগ্যালারী
  • যোগাযোগ
  • মেধাবী ছাত্রবৃন্দ

 

    উক্ত গ্রামটি যোগাযোগ ব্যবস্থার জন্য অনেক দুরহ একটি স্থান ছিল।

  যার চর্তুদিকে নদী থাকায় মানুষজন খুব কষ্ঠে দিন অতিবাহিত করছিলো।

 

  এলাকার কিছু সংখ্যক সচেতন মানুষ উক্ত স্কুলটি প্রতিষ্ঠিত করেন।

  পরে সরকার উক্ত স্কুলের নিবন্ধন করায় উক্ত স্কুলটি সরকারী হয়ে যায়।

   

    এখান থেকে সমাপনী পাশ করে অনেক লোকজন আজ বিভিন্ন যায়গায় কর্মরত আছেন।

    এছাড়াও বিভিন্ন ছাত্র-ছাত্রী উক্ত স্কুল থেকে অত্যন্ত সাফল্যের সাথে উত্তির্ণ হয়েছে।

    শুরুতে গ্রামের লোকজন উক্ত স্কুলের প্রতিষ্ঠা নিয়ে অনেক সহযোগিতা করেছিল ।

  

 এই স্কুলের দরুন আজ এলাকার কোমলমতি ছাত্র-ছাত্রীরা সহজে বিদ্যালয়ে যেতে পারছে , এবং শিক্ষার হার দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

১৯৭৮

 

 মিরপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ইতিহাস অনেক গৌরব উজ্জল ।

 

 শুরুতে মাত্র সাত আট জন ছাত্র-ছাত্রীর নিয়ে উক্ত স্কুল যাত্রা শুরু করেছিলো।

বর্তমানে স্কুলে ৭০০ খেকে ৮০০ জন ছাত্র -ছাত্রী পড়ালেখা করছে।

 

  এই স্কুল থেকে বহুগুণি শিক্ষার্থী আজ দেশ বিদেশী চাকুরী করছে।

 এছাড়াও অনেক শিক্ষাথীর্ উক্ত স্কুল থেকে সমাপণী পাশ করে উচ্চ শিক্ষায় সাফল্য অর্জন করেছে।

 

 এলাকাবাসী উক্ত স্কুলের প্রতি অত্যন্ত আন্তরীক ।

এছাড়াও উক্ত স্কুলের শিক্ষকরা স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের প্রতি অত্যন্ত স্নেহভরে পাঠদান করেন।

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল

 

 

শেণী ভিত্তিক ছাত্র-ছাত্রী’র সংখ্যা

 

ক্রমিক নং

শেণীর নাম

ছাত্র

ছাত্রী

০১

প্রথম

৮৯

৯৭

০২

দ্বিতীয়

৭৪

১০৬

০৩

তৃতীয়

৭১

৯৬

০৪

চতুর্থ

৭৫

৯০

০৫

পঞ্চম

৬৫

৮৬

৮৫%

 

  সভাপতি : মো: খালেদ আহমদ , সদস্য ৮ নং কান্দি গাঁও ইউ/পি, সিলেট সদর,সিলেট।

 

  সহসভাপতি: মো: একরাম আহমদ ।

 

 সেক্রেটারী : রুবেল মিয়া।

 

 

 

বিগত পাঁচ বছরের শ্রেণী ভিত্তিক ফলাফল

পরীক্ষার্থীর সংখ্যা

পাশের হার

সাল

৯৪

৭৮%

২০০৯

১১৩

৬৯%

২০১০

১২৬

৬৪%

২০১১

১৩৭

৭৯%

২০১২

১২৭

৮৬%

২০১৩

 

 

১। সরকার থেকে প্রত্যেক শেণীর বই বিনামূল্যে বিতরণ।

২। সরকার থেকে উপস্থিতির উপর মাসে টাকা প্রদান।

৩। এছাড়াও বিভিন্ন ক্লাব বা সমিতি মেধাবী ছাত্র-ছাত্রী জন্য বিভিন্ন শিক্ষা উপকরণের ব্যবস্থা করে।

 

 

    

     ২০১০ সালে ২ জন এ গ্রেড পেয়ে উত্তির্ণ।

 

     ২০১১ সালে ৬ জন এ গ্রেড পেয়ে উত্তির্ণ ।

 

     ২০১৩ সালে ০১ জন এ+ গ্রেড পেয়ে উত্তির্ণ ।

 

   ২০১৩ সালে ১২ জন এ গ্রেড পেয়ে উত্তির্ণ

 

  এছাড়াও বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্নামেন্টে সাফল্যের সাথে খেলাধুলা।

 

 

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা

০১। প্রাথমিক সমাপনি পরীক্ষায় শতভাগ সাফল্য অর্জন।

০২। গ্রামের মানুষকে সচেতন করার জন্য শিশুদের শিক্ষাদেয়া।

০৩। উল্লেখিত স্কুলের একটি সাহিত্য পাটাগার করার পরিকল্পনা রয়েছে।

০৪। একটি খেলার মাঠ করার পরিকল্পনা রয়েছে।

০৫। একটি শহীদ মিনার করার পরিকল্পনা রয়েছে।

০৬। একটি হলরুম করার পরিকল্পনা রয়েছে।

 

  সিলেট শহরের আম্বর খানা / বন্দর থেকে টুকের বাজার ।

 টুকের বাজার থেকে ধনপুর সি এন জি তে প্রায় ৩ কি:মি: ।

 ধনপুর থেকে নৌকায় পার হয়ে মিরপুর গ্রামের ভীতর উক্ত স্কুলটি অবস্থিত ।

 

 

মেধাবী ছাত্র ছাত্রী বৃন্ধ

নাম

পাশের সাল

ফলাফল

মো: জসিম উদ্দিন

২০০৯

মো: ইমরান আহমদ

২০১০

কবির মাহমুদ

২০১০

সুজন হাওলাদার

২০১১

রুমন মিয়া

২০১২

ইমরান মাহদি

২০১৩

এ+

কবির আহমদ

২০১৩

ইয়াছমিন বেগম

২০১৩

সুমি বেগম

২০১৩

                                  বাদল আহমদ                                      ২০১৩                                                                            এ


Share with :

Facebook Twitter